• Uncategorized

    শিশু জান্নাত হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করলো, পিবিআই পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস

      প্রতিনিধি ২ অক্টোবর ২০২০ , ১১:৫৭:৪১ প্রিন্ট সংস্করণ

    গোলাম কিবরিয়া পলাশ-ময়মনসিংহঃ

    জন্নাতুল পেটে থাকতেই প্রায় তিন বছর আগে তার বাবা আতিকুল (৪০) মারা যায়। জান্নাতুল জন্মের কিছুদিন পরেই মা আকলিমা(৩৫) খাতুন নতুন সংসার পাতেন গৌরিপুরের কোনাবাড়ি গ্রামের বাবুল মিয়ার সাথে। আকলিমা তার বর্তমান স্বামী বাবুলের ৩য় স্ত্রী। সৎ বাবা ও মা দুজনেই রাস্তায় মেরামত শ্রমীক হিসেবে কাজ করে।

    কখনও গাজীপুর , কখনও নারায়নগঞ্জ। ছোট্ট জান্নাতুলকে দুইচক্ষে দেখতে পারেনা সৎ বাবা বাবুল। তুলতুলে ছোট্ট শরীরের উপর তাই মাঝেমধ্যেই নেমে আসে নির্যাতনের কালশিরা দাগ। গলা টিপে জঞ্জালটাকে দূর করতে মন চায় তার। অপুষ্টি অবহেলায় ধুলো মাটি  খেয়ে- মেখে প্রকৃতির এককোনে বেড়ে উঠতে থাকে জান্নাতুল।

    চলমান “করোনা ভাইরাস” এর প্রাদুর্ভাবে কাজ না থাকায় বাবুল মিয়া সস্ত্রীক নিজ গ্রাম কোনাবাড়ি পৈত্রিক বাড়িতে এসে বসবাস করতে থাকে। কিন্তু বাবুল নেশা ও চোরি অপরাধে জরিয়ে পড়ে। নেশাখোর এবং চুরি অভ্যাসের কারনে গ্রামে কেউ তাকে পছন্দ করেনা। সে গ্রামে আসলেই চিছকে চুরি বেড়ে যায়। তাই বাপচাচা ও গ্রামের মানুষ এই আপদকে বিদেয় করতে চায়।

    গত ১৮ মার্চ, ২০২০ তারিখ সকাল বেলা বাবুল মিয়া চা খেতে বাজারে যায়। জান্নাতকে বারান্দায় বসিয়ে রেখে মা ঘরের পেছনে লাকড়ি কুড়াতে যায়। সকাল ১০ টার দিকে বাবুল মিয়া ফিরে এসে দেখে মেয়ে বারান্দায় পায়খানা করে সেটা গায়ে হাতে মেখে খেলা করছে। দেখে মাথা গরম হয়ে ওঠে । পাষন্ড বাবুল মেয়ের মা আশেপাশে না থাকার সুযোগে আচ্ছা করে মাথায় গালে মুখে চড় থাপ্পড় মারে।

    তারপর গলা চেপে ধরে। খুনের নেশা পেয়ে বসে তার মথার উপর। কিছুক্ষণ পর মেয়ের কান্না শুনে মা আকলিমা দৌড়ে বাড়ি আসতে থাকে। বাবুল সেটা আঁচ করতে পেরে উঁচু  বারান্দা থেকে জান্নাতকে উঠানে ফেলে দেয়। জীবন বের হওয়ার শেষ ছটফটানি করতে থাকে জান্নাত। এরমধ্যে তার মা এসে মেয়ের এই অবস্থা দেখে মাথায় পানি এবং বুকে তেল ডলে দিতে থাকে। কিন্তু এর মধ্যে মা এর সকল চেষ্টাকে ব্যর্থ করে অবহেলিত জীবনের শেষ প্রদীপটুকু নিভে যায়।

    নিস্তেজ নিথর দেহ নিয়ে মা আকলিমা স্বামীকে অনুরোধ করে হাসপাতেলে যেতে। মেয়েকে নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছালে কর্তব্যরত ডাক্তার (জবানন্দিমতে) মেয়েকে মৃত ঘোষণা করে।  হাসপাতালে পুলিশি ঝামেলা এড়াতে মৃত্যুর কারন জিজ্ঞেস করলে বলে- পড়ে যেয়ে মাথায় আঘাত লেগে মারা গেছে। মেয়েকে নিয়ে বের হয়ে কি করবে সে, মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে আকলিমার।

    এমতাবস্থায় গ্রামে ফিরলে খুনের রহস্য ফাঁস হতে পারে ভেবে পাষন্ড বাবুল লাশ গুম করতে পরিকল্পনা আঁটতে থাকে। পুলিশ জানার আগে দ্রুত পার্শ্ববর্তি বড় বোনের বাড়ি রোকসানা খাতুন, স্বামী –মিন্টু মিয়া, সাং বালুয়াপাড়া, গৌরীপুর এর বাড়িতে ওঠে। তারপর সন্ধ্যার পর মৃত জান্নাতকে নিয়ে গৌরীপুর পৌরসভাস্থ বাড়ীওয়ালাপাড়া ২ নং রেলগেইট সংলগ্ন ভৈরবগামী রেল লাইনের পূর্বপাশে বসে লাশ গুমের পরিকল্পনা করতে থাকে বাবুল ও তার স্ত্রী আকলিমা।

    অনেক ঝল্পনা কল্পনা করার পর রাত ১০ টা পর্যন্ত কোন উপায় করতে না পেয়ে সেখানেই লাশ রেখে চলে আসে। গ্রামে ফিরলে লোকজন জানাজানি হবে পুলিশ এরেস্ট করবে ভেবে তারা টঙ্গী, গাজীপুর চলে যায়। ইতোমধ্যে পরের দিন ১৯/০৩/২০২০ তারিখ জান্নাতের লাশ অজ্ঞাতনামা হিসেবে থানা পুলিশ লাশের সুরৎহাল, পোস্টমর্টেম ইত্যাদি সম্পন্ন করে বেওয়ারিশ হিসেবে দাফন সম্পন্ন করে।

    তারপর যখন পোস্টমর্টেম রিপোর্টে জান্নাতকে হত্যা করা হয়েছে মর্মে প্রতিবেদন আসলে এসআই( নিঃ) উজ্জ্বল মিয়া বাদি হয়ে গৌরীপুর থনার মামলা নং -২৫, তারিখ -১৭/৮/২০২০ , ধারা- ৩০২/৩৪ দঃবিঃ রুজু করেন। থানা পুলিশ দেড়মাস মামলা তদন্ত করার পর মামলাটি পিবিআই ময়মনসিংহ জেলা গত ২৭/৯/২০২০ তারিখে স্বউদ্যোগে গ্রহণের আদেশ প্রাপ্ত হয়ে তদন্ত শুরু করে।

    ময়মনসিংহ পিবিআই পুলিশ সুপার, জনাব গৌতম কুমার বিশ্বাসের দিক নির্দেশনায়, পিবিআই হেডকোয়ার্টার্সের এলআইসি শাখার সহায়তায় গত ০১/১০/২০২০ তারিখ টঙ্গী পূর্বথানা পূর্ব আরিচপুর এলাকা থেকে মামলার বর্তমান তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শ্‌ক, পিবিআই মোঃ আবুল কাশেম হত্যা মামলার প্রধান আসামী বাবুল মিয়া ও তার স্ত্রী আকলিমা খাতুনকে গ্রেফতার করে।

    খুজঁ নিয়ে পিবিআই ময়মনসিংহ কর্তৃক জানতে পারি গ্রেফতারের পর নিবিড় জিজ্ঞাসাবাদে আসামীদ্বয় জান্নাতুল ফেরদৌসকে হত্যায় নিজেদের জড়িত থাকার বিষয়ে দ্বায় স্বীকার করে উপরোক্ত ঘটনার বর্ননা দেয়। আজ ০২/১০/২০২০ তারিখ আসামীদ্বয়কে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারার জবানবন্দী গ্রহণের জন্য বিজ্ঞ আদালতে উপস্থাপন করা হয়।

    আরও খবর

    শাহজাদপুরে পলাকত ১৭ আসামী গ্রেফতার

    দীর্ঘ ৮ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া এক সন্তান কে ফিরিয়ে আনলেন মানবিকতার সেবক রাওনার চেয়ারম্যান।

    মানব স্বেচ্ছাসেবী ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হলেন মোঃ শহিদুল ইসলাম

    নতুনভাবে চট্টগ্রাম সিটিকে গড়‌তে সক‌লের সহ‌যো‌গিতা চাই: রেজাউল ক‌রিম চৌধুরী মো: শাহজালাল রানা: চট্টগ্রাম সি‌টি ক‌র্পো‌রেশ‌নের মেয়র হি‌সে‌বে নির্বা‌চিত হ‌য়ে আবা‌রো মাদক সন্ত্রাস ও জুয়ার বিরু‌দ্ধে ক‌ঠোর অবস্থা‌নের কথা জানা‌লেন বীর মু‌ক্তি‌যোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল ক‌রিম চৌধুরী। তি‌নি গতকাল ২৭ জানুয়ারী বুধবার অনু‌ষ্ঠিত চ‌সিক নির্বাচ‌নে বাংলা‌দেশ আওয়ামী লী‌গের ম‌নোনয়‌নে‌ নৌকা প্রতী‌ক নি‌য়ে প্রতিদ্ধ‌ন্ধিতা ক‌রে মোট ৩৬৯২৪৮ ভোট পে‌য়ে ‌নিকটতম প্রতিদ্ধন্ধী ধা‌নের শীষ প্রতী‌কের ডাঃ শাহাদাৎ হো‌সেন‌কে ৩১৬৭৬৯ ভো‌টের ব‌্যবধা‌নে হা‌রি‌য়ে আগামী পাঁচ বছ‌রের জন‌্য চট্টগ্রাম সি‌টি মেয়র নির্বা‌চিত হন। আজ ২৮ জানুয়ারী বৃহস্প‌তিবার সকা‌লে বহরদারহাটস্থ রেজাউল ক‌রিম চৌধুরীর বাসভব‌নের‌ সাম‌নে মহানগর আওয়ামী লী‌গের প্রধান নির্বাচনী কার্যাল‌য়ে উপ‌স্থিত নেতাকর্মী ও বি‌ভিন্ন সংবাদ মাধ‌্যমের প্রতি‌নি‌ধি‌দের সা‌থে শু‌ভেচ্ছা বি‌নিময় ক‌রে সকল‌কে ধন‌্যবাদ জানান। এসময় তি‌নি তাঁর পক্ষ থে‌কে চট্টগ্রাম মহানগরীর সকল মানু‌ষের প্রতি শু‌ভেচ্ছা বার্তা ও ধন‌্যবাদ পৌঁ‌ছে দি‌তে সংবাদ মাধ‌্যমের প্রতি বিনীত আহ্বান জানান। সংবাদ মাধ‌্যমের প্রতি ব্রিফিং প্রদান কর‌তে‌ তি‌নি গি‌য়ে জা‌তির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবর রহমানসহ পঁচাত্ত‌রের ১৫ আগ‌ষ্টে ঘাত‌কের বু‌লে‌টে নির্মমভা‌বে নিহত তাঁর প‌রিবার প‌রিজন, জেলহত‌্যার শিকার জাতীয় চার‌নেতা ও মহান মু‌ক্তিযু‌দ্ধে আত্ম‌েৎেসর্গকারী বীর মু‌ক্তি‌যোদ্ধা, বীরাঙ্গনা ও লা‌খো শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জা‌নান এবং মেয়র প‌দে ম‌নোনয়ন দি‌য়ে চট্টগ্রা‌মের মানু‌ষের কল‌্যা‌নে ব‌্যাপক প‌রিস‌রে কাজ করার সু‌যোগ দেওয়ায় নিজ রাজ‌নৈ‌তিক দল আওয়ামী লী‌গের সভাপ‌তি বঙ্গবন্ধুকন‌্যা জন‌নেত্রী শেখ হা‌সিনা ও ম‌নোনয়ন বো‌র্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন‌্যবাদ জা‌নি‌য়ে উন্নয়‌নের অগ্রযাত্রায় আস্থার প্রতিফলন ঘটা‌নোর প্রত‌্যয় ব‌্যক্ত ক‌রেন। চট্টগ্রাম মহানগরীর নানা সমস‌্যা সমাধা‌নের ব‌্যাপা‌রে সাংবা‌দিক‌দের প্রশ্নের জবা‌বে তি‌নি ব‌লেন সম‌ম্বিত প্রয়া‌সে জলাবদ্ধতামুক্ত, যানজটমুক্ত, মাদক-সন্ত্রাস ও জুয়ামুক্ত, নিরাপদ, প‌রিচ্ছন্ন, প‌রি‌বেশবান্ধব, প‌রিক‌ল্পিত, সমৃদ্ধ, পর্যটন রাজধানী হি‌সে‌বে চট্টগ্রাম‌কে গ‌ড়ে তুল‌তে নিরলস কাজ করার কথা ব‌লেন এবং এ কা‌জে সর্বমহ‌লের সহ‌যো‌গিতা কামনা ক‌রেন। স্বচ্ছতার সা‌থে প‌রিচালনার অংগীকার নি‌য়ে সি‌টি ক‌র্পো‌রেশ‌নের কাজ‌কে শতভাগ ডি‌জিটালাই‌জেশ‌নের উ‌দ্যোগ নেয়ার কথাও ব‌লেন তি‌নি। তি‌নি আ‌রো ব‌লেন, নির্বাচনী ইশতেহার‌কে সাম‌নে রে‌খেই এর পূর্ণ বাস্তবায়‌নে আ‌মি সর্বদা আপনা‌দের সা‌থে নি‌য়ে কাজ ক‌রে যাব। দীর্ঘ‌দিন লাগাতার প্রচারণায় ক্লান্ত নেতাকর্মীরা ভো‌র বেলা বিজ‌য়ের বার্তা নি‌য়ে ঘ‌রে গে‌লেও সকাল দশটা থে‌কে আবা‌রো দ‌ফে দ‌ফে নতুন মেয়‌রের বাসা‌ভিমুখী কর্মী সমর্থক‌দের ঢল নাম‌কে থা‌কে। এসময় তারা প্রিয় প্রার্থীর বিজ‌য়ের খুশী‌তে উল্লাশ প্রকাশ ক‌রেন এবং তাঁ‌কে ফু‌লে ফু‌লে অ‌ভি‌সিক্ত ক‌রেন। অ‌ভিনন্দন জানা‌তে আসা নেতাকর্মী ও শুভানুধ‌্যায়ী‌দের প্রতি ধন‌্যবাদ জা‌নি‌য়ে তি‌নি ব‌লেন, অ‌ভিনন্দন নয় সহ‌যো‌গিতা হাত নি‌য়ে পা‌শে থাকা চাই। নেতাকর্মী‌দের উ‌দ্দে‌শ্যে রাখা বক্ত‌ব্যে তি‌নি আ‌রো ব‌লেন, বিশাল জন‌গোষ্ঠী নি‌য়ে বিস্তীর্ণ চট্টগ্রাম মহানগ‌রে সি‌টি ক‌র্পো‌রেশন নির্বাচন কর‌তে গি‌য়ে কিছু অন‌ভি‌প্রেত ঘটনা হয়‌তো ঘ‌টে যায়। কোন প্রকার উস্কানীতে উত‌্যক্ত না হ‌য়ে ধর্য‌্য ধারন ক‌রে নির্বাচন কার্যক্রম প‌রিচালনার জন‌্য সকল‌কে ধন‌্যবাদ। আগামী‌তেও অসীম ধর্য‌্য নি‌য়ে নির্বাচনী ইশ‌তেহার বাস্তবায়‌নে নেতাকর্মীরা পা‌শে থাক‌বেন ব‌লে আ‌মি আশাবাদী। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লী‌গের সাধারন সম্পাদক সা‌বেক মেয়র আ জ ম না‌সির উ‌দ্দিন, সহ সভাপ‌তি এড‌ভো‌কেট ইব্রা‌হিম হো‌সেন বাবুল, আলতাফ হো‌সেন বাচ্চু, সাংগঠ‌নিক নোমান আল মাহমুদ, শ‌ফিক আদনান, প্রচার সম্পাদক শ‌ফিকুল ইসলাম ফারুক, ক্রীড়া সম্পাদক দিদারুল আলম চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক শম‌সের আলী, সাংস্কৃ‌তিক সম্পাদক আবু তা‌হের, তথ‌্য ও প্রযু‌ক্তি বিষয়ক সম্পাদক চন্দন ধর, বন ও প‌রি‌বেশ বিষয়ক সম্পাদক ম‌শিউর রহমানসহ মহানগর, থানা, ওয়ার্ড ও ইউ‌নিট আওয়ামী লীগসহ অঙ্গসহ‌যোগী সংগঠ‌নের অগ‌নিত নেতাকর্মীরা এ সময় ‌সেখা‌নে উপ‌স্থিত ছি‌লেন। এ ছাড়াও সারা‌দিন বি‌ভিন্ন ওয়ার্ড থে‌কে নব‌নির্বা‌চিত কাউ‌ন্সিলবৃন্দ পৃথক পৃথক ভা‌বে নতুন মেয়র এম রেজাউল ক‌রিম চৌধুরীর সা‌থে সাক্ষাৎ ক‌রে শু‌ভেচ্ছা বি‌নিময় ও ফু‌লেল অ‌ভিনন্দন জানান।

    ৩রা নভেম্বর জেল হত্যা দিবস এর বিনম্র শ্রদ্ধা জানান-দৈনিক অালোকিত ৭১ সংবাদ’র সম্পাদক ও প্রকাশক

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ