• Uncategorized

    আহাম্মদপুর গ্রামে ‘জিলাপী’ বিতরণ নিয়ে হেবজু মিয়া সরকার (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে লাঠির আঘতে খুন

      প্রতিনিধি ৩ জুলাই ২০২০ , ৬:৪৯:৩১ প্রিন্ট সংস্করণ

     

    হবিগঞ্জ প্রতিনিধি:

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেপুর ইউনিয়নের আহাম্মদপুর গ্রামে ‘জিলাপী’ বিতরণ নিয়ে হেবজু মিয়া সরকার (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে খুন করেছেন ।

    আজ শুক্রবার(৩ জুলাই) দুপুরে জুম্মার নামাজ শেষে জিলাপী বিতরণের সময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে।

    এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার লাউর ফতেপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফারুক সরকারের রোগমুক্তির জন্য প্রার্থনাসহ তাঁর ও বাবার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গ্রামের সরকার বাড়ির মসজিদে আজ জুম্মার নামাজের সময় বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়।

    দোয়া শেষে ‘জিলাপী’ বিতরণের সময় বিশৃংখলা শুরু হলে সরকার বাড়ির মনির হোসেন সরকারের ছেলে হেবজু মিয়া সরকারের সঙ্গে তারই চাচাতো ভাই মামুন সরকারের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায় মামুন তার চাচাতো ভাইকে লাঠি দিয়ে আঘাত করলে হেবজু মাঠিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হেবজু সরকারকে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত মেডিক্যাল অফিসার ডা. ইখতিয়ার উদ্দিন তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

    নবীনগর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) রুহুল আমীন বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও কোনো মামলা হয়নি

    আরও খবর

    বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট স্বর্ণকারের দোকানে আগুন

    রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে “অফিস অব দি ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স” চালু

    পটুয়াখালীর লাউকাঠী ইউনিয়নে নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই চলছে রাস্তা সংস্করণ

    পটুয়াখালীর লোহালীয়া নদীতে ব্রীজের নির্মান কাজ বর্ধিত সময় সম্পন্ন করার তাগিদ। মু,হেলাল আহম্মেদ(রিপন) পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ  পটুয়াখালী জেলার লোহালীয়া নদীর উপর নির্মানাধীন ব্রীজের ১৪টি স্প্যান বিশিস্ট ৫৭৬.২৫ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রীজের অসমাপ্ত নির্মান কাজ বর্ধিত সময় ২০২১ সনের জুন মাসের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিস্ট ঠিকাদারকে তাগিদ দিলেন  ২৩ আগস্ট রবিবার সকালে ব্রীজ পরিদর্শনে আসা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সচিব ও পরিকল্পনা কমিশনের কৃষি, পানি সম্পদ ও পল্লী প্রতিষ্ঠানের সদস্য মোঃ জাকির হোসেন আকন্দ।  এ সময় সচিব জাকির হোসেন আকন্দ উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, মহামারি করেনা ও দুর্যোগপুর্ন আবহাওয়ার কারনে ব্রীজ নির্মানের  নির্ধারিত সময় ডিসেম্বর মাসে কাজ সম্পন্ন করার সময় বেধে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু করেনা ও ঝড়, বৃষ্টির কারনে ব্রীজের কাজ ব্যহত হয়। এ কারনে ব্রীজ নির্মানের কাজ সম্পন্ন করার জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান মেসার্স নবারুন ট্রেডার্স এন্ড আবুল কালাম আজাদ (JV) কে বলা হয়েছে।  এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন পৌরসভার মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদ, প্রকল্প পরিচালক মোল্লা মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি ও শিক্ষা) জি এম সরফরাজ, এলজিইডি পটুয়াখালীর নিরবাহী প্রকৌশলী মোঃ আবদুস সত্তার, সিনিয়ার সহকারী প্রকৌশলী যুগল কৃষ্ণ মন্ডল, উপ সহকারী প্রকৌশলী মোঃ কামাল হোসেন, উপ সহকারী প্রকৌশলী  মোঃ মইনুল ইসলাম প্রমুখ। এর আগে সচিব মোঃ জাকির হোসেন আকন্দ মুজিব জন্ম শত বর্ষ উপলক্ষে এলজিইডি কার্যালয়ের সামনে বকুল ফুল গাছের চারা রোওন করেন।  প্রকাশ উক্ত ব্রীজটি নির্মানে প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৩ কোটি টাকা, চুক্তি মূল্য ৪৭.১৯ কোটি টাকা। এ ব্রীজটি নির্মান হলে জেলার বাউফল, দশমিনা, গলাচিপা ও ভোলা জেলার সাথে যেগাযোগে সহজ হবে এবং অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে হাজার হাজার মানুষ।এমনটাই আশা করছেন স্থানীয় জনসাধারণ।

    সুজানগরে কোভিড ১৯ করোনা ভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন। 

    ঈদের উপহার নিয়ে গরিবদের পাশে দাড়িয়েছে স্কুল কলেজের ছাত্র-আলোকিত ৭১ সংবাদ

                       

    জনপ্রিয় সংবাদ